Home / Today News / সর্বোচ্চ বেতনের ইতিহাস গড়ে লিভারপুলেই চুক্তি নবায়ন করলো সালাহ

সর্বোচ্চ বেতনের ইতিহাস গড়ে লিভারপুলেই চুক্তি নবায়ন করলো সালাহ

২০২১-২২ মৌসুমটা লিভারপুলে দুর্দান্ত কাটিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ। গত মৌসুমে যৌথভাবে হয়েছিলেন লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। একই সঙ্গে জায়গা করে

নিয়েছিলেন প্রিমিয়ার লিগের বর্ষসেরা একাদশেও। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জের ধরে আরও একটি পুরস্কার ঝুলিতে পুরলেন মিসরীয় এই ফরোয়ার্ড।শেষ কয়েক

বছরে লিভারপুল যেভাবে বদলে গেছে তাতে মোহামেদ সালাহর অবদান অসামান্য। তবে ২০২৩ সালেই শেষ হয়ে যাচ্ছিল লিভারপুলের সঙ্গে তার চুক্তি।

নতুন চুক্তির কথাও এগোচ্ছিল না। ফলে অল রেড শিবিরে সৃষ্টি হচ্ছিল শঙ্কা, সালাহকে হারাতে হবে না তো! তবে লিভারপুলের সেই শঙ্কা কেটে গেছে অবশেষে।

২০২৫ সাল পর্যন্ত চুক্তিতে সই করেছেন সালাহ। এই চুক্তির ফলে লিভারপুল ইতিহাসের সর্বোচ্চ বেতনভুক্ত খেলোয়াড়ে পরিণত হলেন মিসরীয় এই ফরোয়ার্ড।

অল রেডদের ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা খেলোয়াড় তিনি। তাই তার বেতন নিয়ে চাওয়াও ছিল আকাশছোঁয়া। তবে অল রেডরা তাদের বেতন কাঠামোর বাইরে যেতে আগ্রহী ছিল না।

সে কারণে বেশ কয়েকবার চুক্তির আলোচনা থেমে গিয়েছিল, গুঞ্জন আছে লিভারপুলের প্রস্তাব তুলে নেওয়ারও। যার ফলে তার ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন জোরালো হচ্ছিল ক্রমেই।

তবে অবশেষে চলমান দলবদল মৌসুমের মধ্যে মিসরীয় এই ফরোয়ার্ডের সঙ্গে নতুন চুক্তিতে সম্মত হয়েছে লিভারপুল। গার্ডিয়ান জানাচ্ছে, নতুন চুক্তির অধীনে তিনি ক্লাবটির ইতিহাসের সর্বোচ্চ বেতনভুক্ত খেলোয়াড় তো হচ্ছেনই, সঙ্গে গোল করলে ও গোলে অবদান রাখলে পাবেন বাড়তি পুরস্কারও।

শেষ কিছু দিনে মূলত এ আলোচনা বেগ পেয়েছে। সালাহর সঙ্গে কথা বলতে ক্লাবের একটি প্রতিনিধি দল তার দেশে সফর করেছে, ও এই চুক্তি চূড়ান্ত করেছে।

এই চুক্তির ফলে আরও তিন বছর লিভারপুলেই দেখা যাবে সালাহকে। চুক্তি যখন শেষ হবে, অল রেড তারকার তখন বয়স হবে ৩৩ বছর। চুক্তি স্বাক্ষরের পর সালাহ বলেন, ‘আমি দারুণ বোধ করছি, ক্লাবটির হয়ে আরও শিরোপা জিততে মুখিয়ে আছি।

সবার জন্য এটা একটা খুশির দিন। চুক্তি নবায়ন করতে একটু বেশি সময় লেগেছে বটে, তবে আমি মনে করি এখন সবকিছু শেষ, এখন আমাদের সামনে থাকা বিষয়গুলোতে মনোযোগ দেওয়া উচিত।’

‘আমি মনে করি, শেষ পাঁচ ছয় বছর দল কোথায় উঠেছে, সেটা আপনি দেখেছেন। শেষ মৌসুমে আমরা চার শিরোপা জেতার খুব কাছাকাছি ছিলাম, কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে শেষ সপ্তাহে দুটো শিরোপা হারিয়ে ফেলি আমরা।’

‘আমি মনে করি আমরা সবকিছুর জন্য লড়াই করার মতো অবস্থায় আছি আমরা। আমাদের নতুন কিছু খেলোয়াড়ও এসেছে। আমাদের কঠোর পরিশ্রম করে যেতে হবে, ভালো দূরদৃষ্টি থাকতে হবে, ইতিবাচক থাকতে হবে এবং সব কিছুর জন্য লড়তে হবে।’

এর আগে চুক্তির আলোচনা থেমে থাকলেও সালাহ বরাবরই বলে এসেছেন, পরের মৌসুমে ক্লাবেই থাকছেন তিনি। চুক্তি স্বাক্ষর না হলে আগামী মৌসুম শেষে তাকে ফ্রিতেই যেতে দিতে হতো লিভারপুলকে।

২০১৭ সাল থেকে ক্লাবটিতে আছেন সালাহ। চলতি দলবদল মৌসুমে দলটির আক্রমণের চেহারাই বদলে গেছে। সালাহর সঙ্গী সাদিও মানে যোগ দিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখে,

তাকুমি মিনামিনো, দিভোক অরিগিরাও ক্লাব ছেড়েছেন। তবে অল রেডরা এই মৌসুমে দলে ভিড়িয়েছে ডারউইন নুনেজ ও ফাবিও কারভালিওকে। অবশেষে সালাহর চুক্তি নিয়ে জটিলতারও সমাধান খুঁজে পেয়েছে ক্লাবটি।

Check Also

২য় বাংলাদেশি খেলোয়াড় হিসেবে দুবাই থেকে বিশেষ সম্মাননা পেলেন তামিম ইকবাল

ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল দুবাই সরকারের গোল্ডেন ভিসা পেয়েছেন। বিষয়টি তামিম নিজেই নিশ্চিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *