Home / Sports News / ফখরের সেঞ্চুরি, বাবরের ফিফটিতে জয়ে শুরু পাকিস্তানের

ফখরের সেঞ্চুরি, বাবরের ফিফটিতে জয়ে শুরু পাকিস্তানের

শুরুতেই ফর্মের তুঙ্গে থাকা ইমাম উল হকের উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিলো পাকিস্তান। সেখান থেকে সফরকারীদে শক্ত ভিত গড়ে দেন ফখর জামান ও বাবর আজম।

অধিনায়ক বাবর আজম ফিফটি করে আউট হলেও ফখর জামান করেন সেঞ্চুরি। শেষ দিকে শাদাব খানের এক ঝড়ো ইনিংসে তিনশোর বেশি রানের সংগ্রহ পায় সাকলাইন মুস্তাকের দল।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নেদারল্যান্ডসও পাক বোলারদের কঠিন পরীক্ষা নিয়েছে। তিন ফিফটিতে জয়ের জয়ের স্বপ্নও দেখেছিলো স্বাগতিকরা। কিন্তু, পাকিস্তানের অভিজ্ঞতার কাছে পেরে উঠেনি দলটি। শেষ পর্যন্ত অল্প রানেই হারে স্কট এডওয়ার্ডসরা।

আজ (সোমবার) রটারডামে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ১৬ রানে জিতেছে পাকিস্তান। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ফখর জামান ও অধিনায়ক বাবর আজমের নৈপুণ্যে ৬ উইকেটে ৩১৪ রানের বড় সংগ্রহ পায় সফরকারীরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৮ রানে থামে নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

এর আগে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি কোন ফরম্যাটেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেনি পাকিস্তান-নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচ দিয়ে প্রথমবারের মত দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি হল পাকিস্তান-নেদারল্যান্ডস ক্রিকেট দল।

এমন ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতে কিছুটা মন্থর হলেও একসময় নেদারল্যান্ডসের বোলারদের ওপর রাজত্ব করেছেন ফখর জামান। শুরুতে ইমাম উক হককে হারানোর পর অধিনায়ক বাবর আজমকে নিয়ে স্বাগতিক বোলারদের শাসন করেন বাঁহাতি এই ওপেনার।

দ্বিতীয় উইকেটে ফখর ও বাবর যোগ করেন ১৬৮ রান। ফখর ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ১০৫ বলে, ইনিংসে ১২টি চারের সঙ্গে মারেন একটি ছক্কা। বাবর করেন ৮৫ বলে ৭৪ রান। সর্বশেষ ৮ ম্যাচে এটি তাঁর সপ্তম ৫০ পেরোনো ইনিংস।

পাকিস্তান ৩০০ পেরোয় শেষ দিকে শাদাব খানের ২৮ বলে ৪৮ ও আগা সালমানের ১৬ বলে ২৭ রানের ঝড়ো ইনিংসে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে নেদারল্যান্ডসেরও শুরুটা ভালো হয়নি। দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারায় স্বাগতিক দলটি। ওয়ানডেতে নিজের প্রথম ওভারেই উইকেট পান নাসিম। এলবিডব্লিউ করে দেন মাক্স ও’ডাউডকে। একটু পরে ওয়েসলি বারেসির অফ স্টাম্প উপড়ে ফেলেন হারিস।

তৃতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়ে তুলে নেদারল্যান্ডস। পাক বোলারদের উপর চড়াও হয়ে দ্রুত এগোচ্ছিলেন কুপার। দ্রুত বাড়ছিল রান। রউফের বলে ব‍্যাটের কানায় লেগে বাবরের হাতে এই মিডল অর্ডার ব‍্যাটসম‍্যানের বিদায় ভাঙে ৯৭ রানের জুটি। যেখানে কুপারের অবদান দুই ছক্কা ও ছয় চারে ৫৪ বলে ৬৫।

৯৮ বলে ৬৫ রান করা বিক্রমজিতকে প্যাভিলিয়নে ফেরান মোহাম্মদ নওয়াজ। এরপর লড়াই চালিয়ে যান নেদারল‍্যান্ডসের নতুন অধিনায়ক এডওয়ার্ডস।

নতুন নেতৃত্ব পাওয়ার পর ৬০ বলে খেলেন ৭১ রানের চমৎকার ইনিংস খেলে পাকিস্তানের মনে ভয় ধরিয়ে দেন তিনি। তবে, যোগ্য সঙ্গীর অভাবে জয়ের বন্দরে পৌছতে পারেননি তিনি। ২৯৮ রানেই থেমে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস।

পাকিস্তানের হয়ে অভিষিক্ত নাসিম শাহ ৫১ রান খরচ করে ৩ উইকেট শিকার করেন। পেসার হারিস রউফও উইকেট শিকার করেন ৩টি। ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি করা ফখর জামান জিতেছেন ম্যাচসেরা পুরস্কার।

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজটি সুপার লিগের অন্তর্ভক্ত। ফলে, প্রথম ম্যাচ জেতার সঙ্গে পাকিস্তান পেয়েছে ১০ পয়েন্ট। ইংল্যান্ড, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের পর মাত্র চতুর্থ দল হিসেবে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগে বাবর আজমের দল ছুঁয়েছে একশ পয়েন্টের মাইলফলক।

Check Also

প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১১ সদস্যের শক্তিশালী একাদশ ঘোষনা করলো বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে শেষবারের মতো পরীক্ষা নিরীক্ষা সুযোগ পাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *